মাগুরায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পঠন নৈপুণ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিবসহ দাতা সংস্থার প্রতিনিধিদের সন্তোষ প্রকাশ

আশরাফ হোসেন পল্টু,মাগুরা প্রতিনিধি : মাগুরা ৩ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গতকাল বুধবার শিক্ষার্থীদের পঠন দক্ষতা পর্যবেক্ষণ ও বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিবসহ দাতা সংস্থার প্রতিনিধিরা। এ সময় তারা বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেন এবং তাদের শিখন ও অর্জন যাচাই করে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সময় প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা সচিব মোহাম্মদ আকরাম আল হোসেন আশাবাদ ব্যক্ত করে সাংবাদিকদের জানান, ২০২১ সালের মার্চের মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যায়ের ১ কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীর প্রত্যেকে অনর্গল বাংলা ও ইংরেজি পড়তে পারবে এবং একইভাবে গনিত রপ্ত করতে পারবে। আমাদের লক্ষ্যে ছিল আগামী জুনের মধ্যে মাগুরাতে শতভাগ রিডিং নিশ্চিত করা। পঠন দক্ষতা শুধু মাগুরাতেই নই, সারা বাংলাদেশে চালু হয়েছে। এই ধারাটি অব্যাহত রাখতে পারলে আমাদের ছেলে মেয়েরা পড়া লেখায় অত্যন্ত ভালো করবে। বিদ্যালয় পরিদর্শনের সময় প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা সচিব মোহাম্মদ আকরাম আল হোসেনের সাথে উপস্থিত ছিলেন ইউনিসেফের এডুকেশন চিফ নূর শিরিন মোহম্মদ মোখহার, জাইকার শিক্ষা উপদেষ্ঠা আকিকো হানায়া, বিশ্ব ব্যাংক প্রতিনিধি তাসমিনা রহমান, ইউরোপীয় ইউনিয়ন প্রতিনিধি ইউকে ওয়াটাস্কুট, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ফরহাদ আলম,খুলনা বিভাগীয় উপরিচালক মেহেরুন নেছা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) ফরিদ হোসেন, মাগুরা জেলা প্রাথমকি শিক্ষা অফিসার কুমারেশ চন্দ্রগাছি, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান, সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশরাফুল আলম প্রমুখ।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব ও দাতা সংস্থার প্রতিনিধিরা মাগুরা ৩ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়েসহ শালিখা উপজেলার সীমাখালী সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়, মাগুরা মডেল সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়, সদর উপজেলার হাজিপুর সরকরি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাগুরা পিটিআই, সিরিজদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ মোট ৫টি বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন।