আশুলিয়ার মোকসেদ এখন ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসী

বিপ্লব,সাভার: ওয়ার্কশপে মোটর সাইকেল মেরামত এরপর পারিশ্রমিকের টাকা চাওয়ায় চাওয়ায় মুনসুর (৩৫) নামের ওয়ার্কশপ কর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

তাদের মারধরে আহত হয় তিনি অবস্থায় সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

এ ঘটনায় মোকসেদ আলী (৩৫), আসলাম (৩০) কে অভিযুক্ত করে আশুলিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৭ ফেব্রুয়ারি আশুলিয়ার পাবনারটেক ক্লাবের পাশে তার গ্যারেজে মোটরসাইকেল মেরামতের কাজ করাতে আসেন মোকসেদ আলী ও আলমাস। মেরামত কাজের বিল ২০০ টাকা হলেও জোরপূর্বক ১০০ টাকা হাতে ধরিয়ে সেখান থেকে চলে যেতে থাকেন তারা।

এ সময় বাকি টাকা চাইলে ওয়ার্কশপ কর্মী মনসুরের সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে তাকে ব্যাপক মারধর করেন এই দুই যুবক। পরে মনসুরকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে সেখান থেকে চলে যান অভিযুক্তরা।

এ ব্যাপারে ওয়ার্কশপ কর্মী মনসুর জানান, বিভিন্ন সময় তার গ্যারেজে এসে জোরপূর্বক কম টাকায় কাজ পড়াতেন মোকসেদ। পারিশ্রমিকের ন্যায্য টাকা না পেয়ে এর প্রতিবাদ করায় সেদিন তাকে মারধর করা হয়। এ ঘটনায় বর্তমানে তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও জানান।

এদিকে ঘটনার পরেরদিনই আশুলিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনো পুলিশ কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় শঙ্কিত এই ভুক্তভোগী।

এবিষয়ে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তামিম জানান, অভিযুক্তদের একাধিকবার থানায় ডাকা হলেও আসেননি। তাই এ ব্যাপারে এখনো কোনো ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হয়নি।

অভিযুক্ত মোকসেদ আলী মানসিকভাবে একজন বিকারগ্রস্ত। মাদক সেবনের জন্য তাকে একাধিকবার রিহাবে পাঠানো হয় বলেও জানান তিনি।