আশুলিয়ায় ডিস ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেনের উপর হামলা-লুটপাট ।

আধিপত্ত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আশুলিয়ার গাজিরচট এলাকায় আনোয়ার হোসেন (৩৫) এক ডিস ব্যবসায়ীর উপর হামলা চালিয়ে মারধর করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন । এসময় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা ওই ব্যবসায়ীর বাড়ি ও অফিসে ভাংচুর এবং লুটপাট করেছে। এঘটনায় আহত ডিস ব্যবসায়ীর স্ত্রী মাহমুদা আক্তার বাদি হয়ে বৃসহস্পতিবার দুপুরে আশুলিয়া থানায় একটি একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, বুধবার রাত আটটার দিকে ডিস ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন বাসা থেকে বের হয়ে মোটরসাইকেলযোগে মধ্য গাজিরচট ঊষা পোল্ট্রি ফিডের সামনে পৌছে আগে থেকেই অস্ত্রসস্ত্রসহ অবস্থান কারী সন্ত্রাসী মোঃ শাহিন (৩৫), মোঃ সাইফুল (৪৫), মোঃ কাশেম (৫৫), ইলিয়াস হোসেন এলী (৪৫), দেলোয়ার হোসেন দেলা (৪০), পিচ্চি শাহিন (২০), মোঃ আরিফ হোসেন (২৫), সুলতান মিয়া (৩০), ঠান্ডু মিয়া (৩৮), সবুজ হোসেন (২৫), বাদশা মিয়াসহ (৩৮) অজ্ঞাতনামা কয়েকজন মিলে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ব্যবসায়ী অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তারা ওই ব্যবসায়ীর দুটি মোবাইলফোন এবং নগদ ৩২ হাজার পাঁচশ টাকা লুট করে লোহার রড ও হাতুরী দিয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।

একপর্যায়ে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে বাঁচার জন্য ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন দৌড়ে বাসার সামনে পৌছলে সন্ত্রাসীরা বাড়িতে এবং অফিসে এসে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে। এসময় আহতদের চিৎকারে এলাকাবাসীরা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পান নাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে আহত ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেনকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় হাবিব ক্লিনিকে ভর্তি করেন। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

আহতের স্ত্রী মাহমুদা আক্তার বলেন, জমিজমা নিয়ে বিরোধের কারনে পূর্ব শত্রæতার জের ধরে আমার স্বামীর ডিস ব্যবসা দখলের উদ্দেস্যে সন্ত্রাসীরা তার উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে মারধর করে। সন্ত্রাসীরা এলাকায় বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলো এবং বর্তমানে যুবলীগ নেতা শাহাদাত হোসেনের সাথে যুবলীগে যোগ দিয়ে আমাদের ব্যবসা দখলের চেষ্টা করছে।

জানতে চাইলে আশুলিয়া থানা যুবলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন খান বলেন, আমি উপজেলা নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী। এখন সবাই আমার লোকজন। কিন্তু কে বা কারা আনোয়ারের উপর হামলা করেছে বিষয়টি আমার জানা নাই।

এব্যাপারে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ রিজাউল হক দিপু বলেন, ব্যবাসয়ীকে মারধর এবং হামলার একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহরন করা হবে।