আশুলিয়ায় তাজরীন ফ্যাশনের সহযোগিতা বঞ্চিত শ্রমিকদের মানববন্ধন

সাভার প্রতিনিধি: অনুদান ও ক্ষতিপূরণ বঞ্চিত তাজরিন গার্মেন্টেসের আহত শ্রমিক, ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক ও নিহত পরিবারের শ্রমিকরা অনুদান ও ক্ষতিপূরণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে। শুক্রবার সকালে নবীগর-চন্দ্রা মহাসড়কের বাইপাইল এলাকায় অবস্থিত আশুলিয়া প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন করেন তারা।

ক্ষতিপূরণ বঞ্চিত শ্রমিকরা জানায়, ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর তাজরীন ফ্যাশনের ১১২ জন শ্রমিক আগুনে পুড়ে নিহত হয় ও একই সাথে ৩৫০ জন শ্রমিক মারাত্মকভাবে আহত হয়। এদের মধ্যে কিছু সংখ্যক ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন ও এনজিও’র মাধ্যমে নগদ অনুদানসহ বিভিন্নরকম সহযোগিতা পেয়ে আসছে। কিন্তু প্রায় ৯০ জন শ্রমিক অগ্নিকাÐের ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত হয়ে চিকিৎসাধীন থাকলেও কোন সহযোগিতা পাচ্ছে না।

এসময় তারা প্রধানমন্ত্রী, শ্রম মন্ত্রী, বিজিএমইএ ও সেসময়ের বায়ার (ক্রেতা) জারা, কিক, কেকে ও ওয়ালমার্টসহ অন্যান্য বায়ারের নিকট থেকে সহযোগিতা কামনা করেন।

তারা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দাবি আদায়ে আন্দোনরত তাদের সাথে সংহতি প্রকাশ করে আশুলিয়া প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনরত সকলকে যাচাই বাঁছাই করে তালিকা তৈরির পর সহযোগী প্রদানের জোর দাবি জানান শ্রমিক নেতারা।
তাজরীন ফ্যাশনের আহত শ্রমিক শিল্পি আক্তারের সভাপতিত্বে এসময় আহত, ক্ষতিগ্রস্ত ও নিহতের প্রায় অর্ধশতাধিক শ্রমিক ও পরিবারার অংশ নেয়। বঞ্চিত শ্রমিকদের দাবি, নিহত ও আহত এবং ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের সুনির্দিষ্ট তালিকা তৈরি করে প্রকৃত শ্রমিকদের সহযোগিতা। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা কামনা করেন তারা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংগ্রাম পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা এমএস মনির, বাংলাদেশ পোশাক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতি তুহিন চৌধুরী, স্বাধীন বাংলা গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আল-কামরান, গার্মেন্টস টেইলার্স ওয়ার্কার্স লীগের সাভার আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি রাকিবুল হাসান সোহাগ।