এ বছর বৈধতা না নিলে চিরুনি অভিযান মালয়েশিয়ায়

মালয়েশিয়ায় অবৈধ বাংলাদেশিসহ বিদেশি শ্রমিকদের আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে কোনো প্রকার দালাল ছাড়াই কর্মীদের নিজ নিয়োগকর্তার মাধ্যমে বৈধতা গ্রহণ করতে বলেছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাতুক সেরি হামজা জাইনউদ্দিন।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের একটি সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, সরকারের দেওয়া সাধারণ ক্ষমা ঘোষণার পরও যে সব নিয়োগকর্তা তাদের অবৈধ কর্মীদের বৈধতার আওতায় আনবে না সেসব নিয়োগকর্তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি। ৩১ ডিসেম্বরের পর অবৈধদের ধরতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় যৌথ উদ্যোগে চিরুনি অভিযান চালানো হবে বলেও জানান তিনি।

রিক্যালিব্রেশন লেবার প্রোগ্রামে প্রথম দিকে শুধুমাত্র নির্মাণ, উৎপাদন, চাষ ও কৃষি খাতে বৈধতার ঘোষণা দিলেও পরবর্তিতে সোর্সকান্ট্রি বাংলাদেশসহ ১৫টি দেশের অবৈধ বিদেশি কর্মীদের সার্ভিস সেক্টরের চারটি সাব সেক্টর- রেস্তোরাঁ, কার্গো, পরিষেবা এবং হোলসেল ও রিটেইলারে বৈধতার সুযোগ প্রদান করা হয়।

এছাড়া ২০১১ সালে ৬পি এবং ২০১৬ সালে রি-হায়ারিং প্রোগ্রামে নাম নিবন্ধন করেও বৈধ হতে পারেননি সেসব কর্মী, বৈধতা নিতে তারাও নিবন্ধিত হতে পারবেন এবং যেসব কর্মী কোম্পানি থেকে পালিয়ে অন্যত্রে চলে গেছেন তবে তাদের বিরুদ্ধে কোম্পানি কর্তৃক যদি কোনো পুলিশ রিপোর্ট না থাকে তাহলে তারাও বৈধতা গ্রহণ করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

রিক্যালিব্রেশনের লেবার কর্মসূচি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ২ লাখ ১২ হাজার ৯২৬ জন অবৈধ অভিবাসী নিবন্ধিত হয়েছেন। এর মধ্যে প্রায় ৩৪ হাজার ৩১৮ জন তাদের যাচাই প্রক্রিয়ায় উত্তীর্ণ হয়েছেন বাকি আরও ২০ হাজার ৮৮৯ জন যাচাইকরণ প্রক্রিয়ায় ব্যর্থ হয়েছেন।

অন্যদিকে অভিবাসন বিভাগে আরও ১ লাখ ৫৭ হাজার ৭১৯ জন নাম নিবন্ধন করলেও এখনও তাদের ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়নি।

(ডেস্ক নিউজ)