কালিয়াকৈরে স্বতন্ত্র প্রার্থীর ওপর হামলার অভিযোগ আহত-৩

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের কালিয়াকৈরে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকের ওপর হামলা চালিয়ে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই হামলায় স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ ৩ জন কর্মী আহত হয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার গোসাত্রা এলাকায় গত রাতে।সংবাদ সম্মেলন ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত রাতে উপজেলার আটাবহ ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল আলীম তার সহযোগী দুই জন কর্মী নিয়ে গোসাত্রা এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণায় যান।

রাত ৯টার দিকে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কে. এম ইব্রাহিম খালেদ ও তার সাথে অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জন লোক ওই স্বতন্ত্র প্রার্থীর গতিরোধ করে এবং হামলা চালায়। হামলা চালিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও তার সহযোগী রাহিম ও আলামিনকে এলোপাথারী মারধর করে।

ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে তারা চলে যায়। এ ঘটনায় হামলার শিকার ওই স্বতন্ত্র প্রার্থী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও কালিয়াকৈর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থীর আব্দুল আলীম সংবাদ সম্মেলনে বলেন, গত শনিবার রাতে আমার কর্মী আকাশের ওপর হামলা ও পোস্টার ছিড়ে ফেলেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর লোকজন। রাতে আমাকে ও আমার কর্মীর ওপর হামলা চালিয়ে মারধর করে। এ সময় তিনি অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচনের দাবীও করেন তিনি। জালশুকা এলাকায় তার নিজ বাড়ীতে সোমবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

অভিযুক্ত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী কে, এম ইব্রাহিম খালেদ জানান, কোন প্রার্থীর ওপর হামলা ও মারধরের ঘটনা ঘটেনি। আমার বিরুদ্ধে তিনি মিথ্যা অভিযোগ করেছেন। তবে তিনি উল্টো আমাকে বিভিন্ন হুমকি-দমকি দিচ্ছেন।

কালিয়াকৈর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রায়হান জানান, কর্মীকে মারধর ও পোস্টার ছেড়ার অভিযোগের তদন্তে গেলে কথা কটাকাটির এক পর্যায় ধাক্কা-ধাক্কির ঘটনা ঘটেছে। তবে কোনো মারামারির ঘটনা ঘটেনি।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা এএম শামসুজ্জামান জানান, ওই ঘটনায় অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে বিষয়টি তদন্ত কওে দেখা হচ্ছে।