তদন্ত শেষেই বিজিবি’র সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া আশ্বাস ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি মহাপরিচালক

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলায় বহরমপুর গ্রামে বিজিব-গ্রামবাসী সংঘর্ষের ঘটনায় বিজিবি সদস্যদের দোষ প্রমাণিত হলে তদন্ত শেষেই ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানালেন বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ সাফিনুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার বহরামপুর গ্রামে বিজিবির সাথে গ্রামবাসির যে ঘটনা ঘটেছে তা অনাকাঙ্খিত। আমি আশা করছি ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা যেন না ঘটে এজন্য বিজিবি ও এলাকাবাসি উভয়েই সতর্ক থাকবে। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে বিজিবির তরফ থেকে অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেনকে প্রধান করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট উচ্চ পর্যায়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ২টায় ঠাকুরগাঁও সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় গণমাধ্যমকর্মীরা প্রশ্ন তোলেন, হরিপুর উপজেলার বেতনা সীমান্ত থেকে যাদুরানী বাজার এলাকা থেকে ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবির সদস্যরা গরুগুলোকে জব্দ করে এটা কতটুকু দায়িত্বের মধ্যে পরে। এ ছাড়া গুলি করে সাধারন মানুষকে হত্যা না করে অন্য কোনভাবে ব্যবস্থা নেয়া যেত কি না। নিহত ও আহত ব্যাক্তি ও স্বজনদের সহায়তা করা হবে কি না। তাছাড়া এ ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে যে দুটি মামলা করা হয়েছে তা প্রত্যাহার করা হবে কি না।”

গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে। জড়িত বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হবে কি না এমন প্রশ্নে জবাবে তিনি আবারো বলেন তদন্ত করেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ সময় জেলা প্রশাসক ড.কেএম কামরুজ্জামান সেলিম। পুলিশ সুপার মোঃ মনিরুজ্জামানসহ প্রশাাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন ।

মত বিনিময় সভার আগে তিনি ওই উপজেলার ৩ ইউপি সদস্যসহ ৬ জনের সাথে কথা বলেন। তবে তিনি ঘটনাস্থল পরির্দশন না করেই ফিরে গেছেন ।