দুই বছর জেল খেটে ভারত থেকে দেশে ফিরল ৩ বাংলাদেশী নারী

মোঃ রাসেল ইসলাম,বেনাপোল প্রতিনিধি: বিভিন্ন মেয়াদে ভারতে জেল খেটে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরল ৩ বাংলাদেশী নারী। ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ শুক্রবার বিকালে তাদেরকে বাংলাদেশের বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

পরে ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বেনাপোল বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়।

ফেরত আসারা হলেন, বেনাপোল পোর্ট থানার মোন্তাজ মোড়লের মেয়ে মুসলিমা খাতুন (২৭) ভোলা জেলার নুরুল ইসলামের মেয়ে শিল্পী আক্তার(২৮) ও বাগেরহাট জেলার জাকারিয়া হোসেনের মেয়ে রাবেয়া খাতুন (২৫)।

ফেরত আসা নারীরা বলেন, ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে তাদেরকে বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাঠায় দালাল চক্ররা।পরে ভারতের বিভিন্ন জায়গা থেকে তাদেরকে ভারতীয় পুলিশ আটক করে জেলে পাঠায়। ভারতের জেলে দুই বছর থাকার পর বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে আজ বাংলাদেশের বেনাপোল চেকপোষ্ট ইমিগ্রেশন দিয়ে দেশে পাঠানো হয়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব বলেন, এরা পাসপোর্ট ছাড়াই বিভিন্ন সীমান্ত পথে ভারতের বোম্বে শহরে কর্মরত থাকাকালে সে দেশের পুলিশের কাছে আটক হন। এরপর আদালতের মাধ্যমে তারা জেল খানায় যান। পরে ওপারের রেসকিউ ফাউন্ডেশন নামে একটি সংস্থা তাদের নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। এরা সেখানে ২ বছর থাকার পর দেশে এসেছে ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে।

ফেরত আসাদের যশোর রাইটস নামে একটি বেসরকারী সংস্থা পরিবারের নিকট হস্তান্তর করার জন্য বেনাপোল পোর্ট থেকে নিজ হেফাজতে নিয়েছে।