ধামরাইয়ে তুচ্ছ ঘটনায় মারামারি আহত ১৫ আটক ৪

ঢাকার ধামরাইয়ে তুচ্ছ ঘটনার জেরে রোববার ১২ ঘটিকায় সুয়াপুর নান্মার উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র নিয়ামত ও তার ভাড়াটে গুন্ডা নিয়ে সুয়াপুর নান্নার উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ ম শ্রেনির ছাত্র মোঃ আলামিন পিতাঃ হায়দার হোসেন সাং- সুয়াপুর তাকে ব্যাপক পেটায় একদল সন্ত্রাসী।

পরে গ্রামবাসী ও স্কুলের ছাত্ররা জোট বেঁধে ওই সন্ত্রাসীদের ধাওয়া করে কয়েকজনকে ধরে মারধর করে।এ ঘটনায় ছাত্র-শিক্ষক ও গ্রামপুলিশসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় ক্লিনিকসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সুয়াপুর-নান্নার উচ্চ বিদ্যালয়ে।এ ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে। আটকরা হলো সাগর আলী (১৯)পিতা আউলাদ হোসেন , নাহিদ (১৯), শিপন (১৯) ও জাহাঙ্গীর হোসেন (২২)। কিন্তু নিয়ামত সহ বাকী সকলেই পালিয়ে যায়।

পুলিশ ও শিক্ষকদের কাছ থেকে জানা গেছে, কিছুদিন আগে নান্নারে গ্রামীণ মেলায় একটি মারামারির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জেরে বৃহস্পতিবার সুয়াপুর-নান্নার হাই স্কুলে আলামীনসহ তিন ছাত্রের সঙ্গে মারামারি হয় নান্নার গ্রামের নিয়ামত আলী গংয়ের। বৃহস্পতিবারের ঘটনার জেরে আজ সকালে স্কুলের কাছে আলামীনের ওপর হামলা চালায় নিয়ামত আলীর নেতৃত্বে ছয়টি মোটরসাইকেলে আসা ১৯ সন্ত্রাসী। তারা আলামীনকে হকিস্টিক দিয়ে পেটাতে থাকলে স্কুলের শিক্ষক ফজলুল হক তাদের থামাতে যান।

স্কুলের শিক্ষক ফজল হক স্যার থামাতে গেলে স্যারকে সন্ত্রাসীরা ধাক্কা দয়ে রাস্তার ঢালে ফেলে দেয়। স্কুলের ছাত্ররা তা সজ্জ না করে সন্ত্রাসীদেরকে ধাওয়া করে।