ধামরাই তিন মাস যাবত তালাবদ্ধ নান্নার কমিউনিটি ক্লিনিক।

ধামরাই উপজেলার নান্নার ইউনিয়নে সোমবার (৪মার্চ) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নান্নার ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে অবস্থিত নান্নার কমিউনিটি ক্লিনিকটি প্রায় সাড়ে তিন মাস যাবত তালাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে।

ধামরাই উপজেলার নান্নার ইউনিয়নে ২নং ওয়ার্ডে অবস্থিত একটি কমিউনিটি ক্লিনিকে র্কমরত স্বাস্থ্য সহকারী ও কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডারের বিরুদ্ধে অফিস ফাঁকি ও কর্তব্য অবহেলার অভিযোগ উঠেছে।এসময় ওই ক্লিনিকে র্কমরত স্বাস্থ্য সহকারী (সি.এইস.সি.পি)শিল্পী সরকার ও মুক্তা আক্তার(এফ.ডাব্লিউ.এ) অনুপস্থিত দেখা যায়।

ক্লিনিকের সামনে দাড়িয়ে থাকা নান্নার এলাকার মরিয়ম বেগম এসেছেন চিকিৎসা সেবা নিতে। কিন্তু ক্লিনিকটি বন্ধ থাকায় চিকিৎসা সেবা না নিয়েই ফিরে যান তিনি।তারমিয়া(৪০) স্থানীয় এক দোকানদার ব্যাক্তি বলেন, ক্লিনিকটি নিয়মিত বন্ধ থাকার কারণে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এলাকাবাসী।এ বিষয়ে কমিউনিটির সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক এম.এ.হান্নান বলেন তিন-চার মাস যাবত কমিউনিটি ক্লিনিকটি বন্ধ তা উপরের মহল জানে, শিল্পি সলকারকে শো-কোজ করা হয়েছে তা তে ও কোন লাভ হয়নি। আমি তো দুইটা দায়িত্ব একসাথে পালন করি। ক্লিনিকে কেউ নেই এটা খুব খারাপ!

ওখানে (কমিউনিটি ক্লিনিকে) এফ ডব্লিউ থাকার কথা।স্বাস্থ সহকারী আর ও বলেন আমি এপিআই(টিকাদান) কর্মসূচীতে ফিল্ডে কর্মরত ছিলাম। তবে এত দিন যাবত ক্লিনিক বন্ধ এটা সত্যিই খুব দুঃখজনক বিষয়।