নওগাঁয় স্মার্টফোনে লুডু খেলাকে কেন্দ্র করে যুবক নিহত

আপেল মাহমুদ, নওগাঁ:  নওগাঁয় মোবাইলে লুডু খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে আহত মাহমুদ হাসান মন্ডল (২০) নামে এক যুবক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। গতকাল রোববার (০৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩ টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে মারা যান তিনি। এরআগে সকাল ১০টার দিকে সদর উপজেলা পরিষদ সিও অফিসের পাশে চকবাড়িয়া সড়কে এ ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। শরিবার রাত ৯টার দিকে শহরের চকবাড়িয়া মহল্লার দর্গাতলায় মোবাইলে লুডু খেলাকেন্দ্র করে নিহত মাহমুদ হাসানের সাথে তার সহপাঠীদের ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। নিহত মাহমুদ হাসান চকবাড়িয়া মহল্লার ওসমান আলী মন্ডলের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শরিবার রাত ৯টার দিকে শহরের চকবাড়িয়া মহল্লার দর্গাতলায় গানের অনুষ্ঠান হচ্ছিল। সেখানে মাহমুদ হাসান তার মুঠোফোনে সহপাঠিদের সাথে লুডু খেলছিল। এসময় একই মহল্লার সোহেল ও আলীসহ কয়েকজন তাকে লুডু খেলতে নিষেধ করেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। রোববার সকাল ১০টার দিকে মাহমুদ হাসান সিও অফিস থেকে বাজার করে বাড়ি ফিরার পথে বাজারের পাশে চকবাড়িয়া সড়কে মাহমুদ হাসানকে পিছন থেকে ছুরিকাঘাত করে সোহেল।

এসময় মাহমুদ হাসান ছুরিটি কেড়ে নিয়ে সোহেলকে আঘাতের চেষ্টা করেন। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে দুজনকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়। মাহমুদ হাসানের অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় তার উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল ৩ টার দিকে মাহমুদ হাসান মারা যান।

নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সরোয়ার্দী হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, স্মার্ট ফোনে লুডু খেলাকে কেন্দ্র করে মাহমুদ হাসানকে ছুরি দিয়ে আঘাত করেন সোহেল। পরে অবস্থা গুরুতর হলে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপাতাল এবং পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মাহমুদ হাসানকে মৃত ঘোষণা করেন।