নাভারণ প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থীদের মাঝে খাবার ও গাছের চারা বিতরণ করলেন উদ্ভাবক মিজান

যশোরের শার্শা উপজেলার নাভারণে অবস্থিত নাভারণ প্রতিবন্ধি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি ক্ষুদে প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থীদের মাঝে সপ্তাহে একবার বিদ্যালয়ের টিফিন টাইমে টিফিনের খাবারের ব্যবস্থা করেছেন উদ্ভাবক মিজান।

এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার সময় টিফিনের খাবার বিতরণ করেন তিনি। পাশাপাশি এই সমস্ত শিশুদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে প্রত্যেক শিশুকে পরিবেশ বান্ধব গাছের চারা বিতরণ করা হয়।

শ্যামলাগাছী গ্রামের কৃতি সন্তান মটর ম্যাকানিক উদ্ভাবক মিজান পরিবেশের উপর বিশেষ ভাবে অবদান রাখায় তার নিজস্ব ভ্রাম্যমান নার্সারীর পক্ষ থেকে এই গাছের চারা বিতরণ করা হয়। উদ্ভাবক মিজানের উদ্ভাবনার কথা বলে শেষ করা যাবে না। তিনি তার ছোট্র ক্ষুদে মস্তিস্ক দ্বারা একের পর দেশের জন্য দেশের মানুষের জন্য পরিবেশের জন্য জীবন উৎস্বর্গ করে চলেছেন। প্রাণ কাঁদে তার সমাজের অবহেলিত মানুষের জন্য।

এ জন্যই তিনি বিভিন্ন সময়ে পরিবেশ রক্ষায় গাছের চারা বিতরণ, প্রতিবন্ধিদের জন্য খাবার, সেচ্ছায় ধুমপান ছেড়ে দেওয়া মানুষের জন্য সুভেচ্ছা উপহার, গরীব শিক্ষার্থীদের জন্য স্কুল ড্রেস বিতরণ এবং পরিবেশের ভারসম্য রক্ষায় বিভিন্ন পাখ পাখালির জন্য বাস্স্তান গড়ে তোলাসহ নানান রকম চিন্তা চেতনায় এগিয়ে চলেছেন এবং সে মোতাবেক কাজ করে চলেছেন।

প্রতিবন্ধি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের খাবার এবং গাছের চারা বিতরণ অনুষ্ঠানে এসময় উপস্থিত ছিলেন,নাভারন প্রতিবন্দি কল্যাণ সংস্থার সভাপতি মোঃ আবুবক্কার,১০ নং শার্শা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মুরাদ হোসেন, স্কুলের প্রধান শিক্ষক বন্যা রানী মÐল, স্কুলের দাতা সদস্য মোকলেছুর রহমান কাকন,চৌধুরী আব্দুর রহিম,সাবেক প্রধান শিক্ষক আব্দুল ওহাব মাস্টারসহ সকল শিক্ষক শিক্ষিকা পরিচালনা পরিষদের সদস্য ও কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দ।