পরকীয়া করার সময় প্রেমিকসহ স্ত্রীকে পুলিশে দিলেন স্বামী

সৌমেন মন্ডল, রাজশাহী ব্যুরোঃ পরকীয়ায় আসক্ত হয়ে ঢাকা থেকে প্রেমিকের সঙ্গে রাজশাহীর হোটেলে এসে অভিসারের সময় স্বামীর হাতে ধরা পড়লেন প্রেমিকসহ স্ত্রী।

এদের মধ্যে প্রেমিক ঢাকার নাভানা গ্রুপ ও মেয়েও ঢাকায় হাতিলে কর্মরত। আর মেয়ের স্বামী মোকসেদ ঢাকার একটি আর্থিক ফার্মে কর্মরত।

এদের মধ্যে প্রেমিকের নাম সারোয়ার হোসেন। সে কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে। আর মেয়ের নাম তানজিন (বিথি)। তার বাড়ি মাদারিপুরের কালকিনি এলাকায়। দ্জুনেই ঢাকায় থাকে। বিথির স্বামী থাকা সত্তেও সারোয়ারের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে রাজশাহীর হোটেলে এসে অবস্থান করছিলেন তারা।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহী নগরীর হোটেল নাইস ইন্টারন্যাশালের ৫০৩ নম্বর কক্ষ থেকে আপত্তিকর অবস্থায় মেয়ের স্বামী রাজশাহী পুলিশের সহায়তায় তাদের আটক করে। এ ঘটনায় স্থানীয়ভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও ভাইরাল হয়। আপত্তিকর অবস্থায় আটকের পর তাদের রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া থানায় নেওয়া হয়েছে।

বিথির স্বামী মোকসেদ আলী জানান, তাদের (প্রেমিকসহ তার স্ত্রী) ঢাকা ত্যাগের পর থেকে তিনিও তাদের পিছু নেন। সোমবার তাদের অগোচরে তিনিও রাজশাহী এসে নাইস হোটেলে উঠেছিলেন। রাত থেকেই তিনি উৎ পেতে ছিলেন। মঙ্গলবার দুপুরে তারা হোটেল ত্যাগের আগেই উৎ পেতে থাকা স্বামী তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলেন। পরে নগরীর বোয়ালিয়া থানা পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম জানান, পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গেই স্বামীর হাতে ধরা পড়েন তরুণী। এ সময় তার প্রেমিককেও আটক করা হয়। তাদের দুইজনকে থানায় নেওয়া হয়েছে। তাদের পরিবারের সদস্যদের খবর দেয়া হয়েছে। তাদের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তি সিদ্ধান্ত নেয়া হব ।