সাভারের ভাকুর্তায় ভেকু দিয়ে ব্যবসায়ীর দোকান পাট ভাংচুর ১৫ লক্ষ টাকার মালামাল লুটপাট।

ষ্টাফ রিপোর্র্টার সাভার : সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নে জমি জমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে ভেকু দিয়ে প্রতিপক্ষের দোকান পাট ভাংচুর করা হয়েছে। লুটপাট করা হয়েছে ১৫ লক্ষ টাকার মালামাল।

গত ২৬শে জুন ২০১৯ বুধবার সকালে উপজেলার ভাকুর্তা ইউনিয়নের পাঁচ নং ওয়ার্ডের খাগুরিয়া নোয়াখালী মসজিদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় দোকানের মালিক মোঃ মনির হোসেন বলেন, তার ত্রুয়কৃত ১০ শতাংশ জমির উপরে কয়েকটি দোকান ঘর নির্মান করে গত সাত মাস যাবৎ সেখানে পোল্ট্রি মুড়গি, গোডাউন ও মুদি দোকান, ব্যবসায়ীক কর্য্যত্রুম পরিচালনা করে আসছিলেন তিনি।

গত বুধবার সকাল ১০ টার দিকে প্রতিপক্ষ আশ্রাফ উদ্দিনের নেতৃত্বে প্রায় দের দুইশো লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে ভেকু দিয়ে, জোর পূর্বক ভাবে তিনটি দোকান ঘর ভেঙ্গে দেয়া হয় এবং দোকানে থাকা প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার মালামাল লুটপাট করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, একই এলাকার মোঃ আশ্রাফ উদ্দিন দির্ঘদিন ধরে জমিটির ত্রুয় সুত্রে মালিকানা দাবিকরে জবর দখলের পায়তারা করে আসছিলেন। প্রতিপক্ষের সাথে জমিটির মালিকানা নিয়ে ঢাকা জেলা জজ আদালতে একটি জাল জালিয়াতি মামলা ও চলমান রয়েছে।

আদালতে মামলা চলাকালীন অবস্থায় হঠাৎ করে কোটের রায় বা, নির্দেশ ছারাই জোর পূর্বক ভাবে তার দোকান ঘর ভাংচুর করে লুটপাট করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন ব্যবসায়ী মনির হোসেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, এ বিষয়ে ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাভার সার্কেল মোঃ তাহমিদুল ইসলাম ২৭শে জুন ২০১৯ ইং বৃহস্পতিবার জমিটির কাগজ পত্রসহ সাভার মডেল থানায় হাজির থাকার জন্য নোটিশ প্রদান করেন। এদিকে নোটিশ অনুযায়ী থানায় কাজির থাকার একদিন আগেই প্রতিপক্ষ মোঃ আশ্রাফ উদ্দিনের নেতৃত্বে ২৬শে জুন ২০১৯ইং বুধবার সকাল ১০টার দিকে ভেকু দিয়ে তার তিনটি দোকান ঘর ভাংচুর করা হয়। এ সময় দোকানে থাকা প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার মালামাল লুটপাট করা হয়েছে বলে দাবি করেন ব্যবসায়ী মনির হোসেন। সে আরো বলেন, ভাংচুর ও লুটপাটের সময় ৯৯৯ নাইনে ফোন করে বিষয়টি জানানোর কিছুক্ষন পরে ভাকুর্তা পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মোঃ তরিকুল ইসলাম ঘটনাস্থলে পৌছালে তারা পালিয়ে যায়।