ছেঁড়া জিন্স পরা যাবে না, বিজ্ঞপ্তি জারি

হিজাব বিতর্কের মধ্যেই এবার কলেজ ক্যাম্পাসে ‘কৃত্রিমভাবে ছেঁড়া’ কোনও পোশাক পরা যাবে না বলে নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। এ নির্দেশ অমান্য করে ছাত্রছাত্রীদের কেউ এমন পোশাক পরে এলে তাকে ‘ট্রান্সফার সার্টিফিকেট’ (টিসি) দেওয়া হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

সম্প্রতি পোশাক নিয়ে এমন বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে কলকাতার আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু কলেজ কর্তৃপক্ষ। খবর আনন্দবাজারের।

আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু কলেজের বিজ্ঞপ্তিতে বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়, ‘কৃত্রিমভাবে ছেঁড়া’ ট্রাউজার্সের প্রসঙ্গ। নির্দেশ অমান্য করে ছাত্রছাত্রীদের কেউ এমন পোশাক পরে এলে তাকে ‘ট্রান্সফার সার্টিফিকেট’ (টিসি) দেওয়া হবে বলেও উল্লেখ করেছে নির্দেশনায়। শহরের কলেজ পড়ুয়াদের মধ্যে ‘রিপ্‌ড জিন্স’-এর তুমুল জনপ্রিয়তা। এই পরিস্থিতিতে কলেজ কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে প্রশ্ন তুলেছে ওই কলেজের শিক্ষার্থীদের একাংশ।

এ বিষয়ে এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘অশালীন পোশাক নিষিদ্ধ করার যুক্তি মানা যেতে পারে, কিন্তু রিপ্‌ড জিন্স নিষিদ্ধ করার উদ্দেশ্যে এমন পোশাক ফতোয়া জারি অযৌক্তিক।’

তার মতে, এই ধরনের নিয়ম তৈরি করে কলেজ কর্তৃপক্ষ ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দে হস্তক্ষেপ করছেন।

কলেজের ওয়েবসাইট থেকে নোটিশটি পাওয়ার পর বার বার চেষ্টা করেও আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু কলেজের প্রিন্সিপালের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি বলে জানায় আনন্দবাজার।

কয়েক বছর আগে মুম্বাইয়ের একটি কলেজ ক্যাম্পাসে ছেঁড়া জিন্স নিষিদ্ধ করার বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছিল। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এমন নির্দেশিকার পেছনে সামাজিক কারণ রয়েছে বলে দাবি করে বলেছিলেন, ‘ওই ধরনের পোশাক দরিদ্রদের ব্যঙ্গ করে। যাদের ছেঁড়া পোশাক পরা ছাড়া কোনো উপায় নেই, তাদের কটাক্ষ করে।’

সম্প্রতি হিজাব পরে কলেজে প্রবেশ নিষেধ করায় দেশটির কর্ণাটকে বিতর্ক তৈরি হয়। এ নিয়ে মামলাও হয় আদালতে। যার রেশ ছড়িয়েছে ভারতজুড়ে। এবার পোশাক বিধি নিয়ে নতুন বিতর্ক শুরু হলো কলকাতাতেও।