ধামরাইয়ে বেসরকারী ঔষুধ কম্পানী দি একমি ল্যাবরেটরিজে বিদ্যুৎস্পর্শে এক শ্রমিকের মৃত্যু।

ঢাকার ধামরাইয়ে বেসরকারী ঔষুধ কারখানায় বিদ্যুৎস্পশে হয়ে মোঃ রনি মিয়া (২৫) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (১২মার্চ) দুপুর ১২ ঘটিকার সময় ধামরাই পৌর-শহরে ঢাকা-আরিচা মহা-সড়কের পাশে বেসরকারী ঔষুধ কম্পানির ভিতরে রং এর কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পশে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রনির বাড়ী ধামরাই পৌর-শহরে ছোট চন্দাইল মহল্লার মোঃ হোসেন আলীর ছেলে।
প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে খাবার খেয়ে পুর্ণরায় কাজে এসে এ্যালমুনিয়ামের মই নিয়ে বিলন্ডিং এর দেওয়ালে রং করার সময় উপর দিয়ে বিদ্যুতের খোলা তার প্রভাহিত হওয়ায় মই তারের সাথে লেগে গেলে সাথে সাথে মোঃ অহেদ আলী(৪২), এবং মোঃ রনিকে বিদ্যুৎ আটকে ধরে কিছু সময় পর তারা নিচে ছিটকে পড়ে যায়। এই খবর অফিসের কর্মকর্তারা জেনে তাদেরকে প্রথমে গণ স্বাস্থ্য হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তাদের অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেণ। এই সময় তাদের চিকিৎসা দেওয়া হলে আহেদ আলী জ্ঞান ফিরলে ও রনির জ্ঞান না ফেরাই তাকে আইসিওতে ভর্তি করে। পরে সেখানে থেকে রনির মৃত্য হয়।

এই ব্যাপারে বেসরকারী ঔষুধ কম্পানী দি একমি ল্যাবরেটরিজ এর নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শহীদুল ইসলাম মাসুদ বলেন, আমরা দুর্ঘনার খবর পেয়ে সাথে সাথে দুইজনকে মেডিকেলে পাঠিয়ে দেয়। এদের মধ্যে রনি নামের ছেলেটি মারা যায় এবং অহেদ আলী বেচে যায়।

এই ব্যাপারে ধামরাই থানার (এস আই) মোঃ খায়ের বলেন, বিদ্যুৎস্পর্শে রনি নামে একজনের মৃত্য হয়েছে। খবর পেয়ে রনির বাড়ীতে গিয়ে লাশের ছোরত হাল করে গ্রামের লোকজন বসে রনির বাবার কাছে লাশ বুঝিয়া দেওয়া হয়েছে। পরে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।