রাজশাহীতে এবার দেবি দূর্গার মুখেও মাস্ক

সৌমেন মন্ডল,রাজশাহী ব্যুরোঃ করোনাই মানুষ কে সচেতন করতে এবার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা দূর্গার মুখে মাস্ক। বৃহস্পতিবার দেবীর বোধনের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে পূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা।

ঢাকের ঢোল, কাঁসর ঘণ্টা আর শাঁখের ধ্বনিতে মুখর হয়ে উঠেছে পূজামÐপ। তবে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে পূজামÐপের আয়োজন এবার অনেকটাই ফিকে। পূজায় মায়ের কাছে ভক্তোদের প্রার্থনা তিনি যেন পুরো পৃথিবীর মানুষকে সকল অমঙ্গল/করোনা মহামারি থেকে রক্ষা করেন।

তাই দেবি মাতার মুখে প্রতিকী হিসাবে মাস্ক পরিয়ে দেয়া হয়; যেন দেবীমাতাকে দেখে সবাই মাস্ক ব্যবহার করতে না ভুলে। শুক্রবার সাকলে পুজার শুরুতে রাজশাহী মহানগরীর সুলতানাবাদ দেবালয় মুজামন্ডপে দেবির মুখে মাস্ক পরিয়ে দেয়া হয়।

রাজশাহী জেলা ও মহানগর মিলে ৪৭৮টি মÐপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে জেলায় ৪০৮টি ও নগরে ৭০টি। তবে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় আগে পুজামন্ডপ দর্শনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কর্তৃপক্ষ।

রাজশাহীতে দিন দিন কমছেই সচেতনতা ও স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রবণতা। সরকারি-বেসরকারি অফিস-আদালত থেকে শুরু করে নগরীর মার্কেট ও হাট-বাজারগুলোতে অধিকাংশ মানুষই মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি। সরকারিভাবে মাস্ক পরার নির্দেশনা থাকলেও কেউ তা ব্যবহার করছে না।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সর্বস্তরে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কিন্তু রাজশাহী নগরের মার্কেটগুলোতে ঘুরে দেখা গেছে অধিকাংশ মানুষ মাস্ক ব্যবহার করছে না। মানছেন না সামাজিক দুরত্ব। এছাড়াও করোনার উপসর্গ থাকলেও পরীক্ষাও করছেনা অনেকেই। ফলে শীতের শুরুতে রাজশাহী অঞ্চলে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা।