সাভারের লাজপল্লীতে মত বিনিময়-দোয়া মাহফিল ও ইফতারের আয়োজন ।

সাভারে মত বিনিময়-দোয়া মাহফিল ও ইফতারের আয়োজন করেন মঞ্জুরুল আলম রাজিব ।

পবিত্র রমজানুল মোবারক উপলক্ষে ঢাকা – ২ আসনের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন- আমিন বাজার- ভাকুর্তা ইউনিয়ন এর রাজনীতিক নেতৃবৃন্দ সুধীজনদের সাথে মতবিনিময় সভা ও ইফতার করেন। মত বিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন মঞ্জুরুল আলম রাজিব সাভার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান।১৭মে শুক্রবার সাভারের জোড়পুল এলাকার লাজ পল্লী কনভেনশন সেন্টারে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এসময় অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই দিনেবাংলাদেশ পদার্পণ করেছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে যখন ১৯৭৫ সালে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয়। তখন, বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা বিদেশে ছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও তার ছোট বোন তার স্বামীর সাথে বিদেশে ছিলেন, যার সুবাদে তিনি বেঁচে গিয়েছিলেন।বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তাকে আমরা সভাপতি করি এবং আমাদের আশা-আকাঙ্ক্ষা কোন কিছুই ছিল না তারপর তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে দীর্ঘ ২১ বছর পর ক্ষমতায় এনেছেন আবার আলোর আশ্বাস, দিয়েছেন তিনি আমাদের ।

তাছাড়া বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের বিচারের জিয়া রহমান উইথড্র করে দিয়েছিল, আমরা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচার করতে পারব কি পারব না, এই একটা সন্দেহের মাঝে ছিলাম যখন দীর্ঘদিন পরে আমাদের জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ২১ বছর পর আমাদের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এনেছেন এবং ৯৬ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচার শুরু করেছিলেন ৯৮ সালের নভেম্বর মাসের ৮ তারিখ নিম্ন আদালতে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের রায় আমরা পেয়েছিলাম তারপর আবার সময় লেগেছে অনেক দিন ২০০৯ সালে যখন আমরা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসি দীর্ঘ ৩৫ বছর পর আমরা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচারের রায় কার্যক্রম করতে পেরেছিলাম চূড়ান্ত রায় পেয়েছিলাম।তিনি আরো বলেন আমাদের প্রিয় নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে বারবার হত্যা করার চেষ্টা করেছে বিরাট বোমা রাখা হয়েছিল তাকে হত্যা করার জন্য, ২১ বার তাকে হত্যা করার চেষ্টা চালিয়েছে।তাছাড়া এখনো বাংলাদেশের মানুষ বলে নি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা কথা কত মা বোন সহ কত নেতা কর্মী মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়েছে এই একুশে আগস্টে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়েছে, কিন্তু আল্লাহর রহমতে তিনি বেঁচে যান আজকে দেশকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে নিয়ে এসেছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা আল্লাহ তাকে দিয়ে দেশকে এই পর্যন্ত নিয়ে আসবে বলে আল্লাহ তায়ালা সকল চক্রান্ত হাত থেকে তাকে রক্ষা করেছেন আল্লাহ তাআলার রহমত এর হাত তার মাথার উপরে ছিলেন বলে তার উপরে ১৯ বার হামলা হওয়ার পরও তিনি বেঁচে গেছেন আল্লাহর রহমতে।

বাংলাদেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশে গিয়েছেন আমরা সকল ক্ষেত্রে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা বাংলাদেশ সকল ক্ষেত্রে আমরা এগিয়ে আছি ২০৪১ সালের মাঝে আমরা উন্নয়নের একটি দেশ হিসেবে স্বপ্ন দেখছি এবং এই সরকার থাকলে আমরা এই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করব ইনশাল্লাহ।তিনি বলেন জঙ্গিবাদ ধর্ষন কারীদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন তুলুন। তিনি আরো বলেছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জন নেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যখন দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এক শ্রেণীর মানুষ দেশকে পিছিয়ে দেওয়ার জন্য এসব কৌশল চালিয়ে যাচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকার কথা বললেন তিনি এক ইফতার মাহফিলে সাভারে ।

তারপর জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া ও তার দীর্ঘ আয়ু কামনা করেন।এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা – ২ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল, সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মাসুদ চৌধুরী ,যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক হাসান তুহিন, সাভার উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ইয়াসমিন আক্তার সুমি তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফখরুল আলম সমর, ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সায়েম মোল্লা, সাভার উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ লিয়াকত হোসেন, সাভার উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির আহমেদ, আমিন বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার, ভাকুর্তা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রতন সাহা, সাভার উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আতিকুর রহমান আতিক, সাভার উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ কবির, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আতিক রহমান অভি, নয় নং ওয়ার্ড লীগের সভাপতি শাহ্ আলম, ইউপি সদস্য নিজাম আহমেদ, সহ আওয়ামী লীগের সকল অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীরা সহ এলাকার আরো গণ্যমান্য ময় মুরুব্বি বিন্দ্রা উপস্থিত ছিলেন ।