সাভারে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ খোকনের বিরুদ্ধে।

স্টাফ রিপোর্টারঃ সাভারে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে খোকন নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ।

উপজেলার তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের হেমায়েতপুর বাসস্ট্যান্ড লালন টাওয়ারের পিছনে জয়নাবাড়ী এলাকায় বেশকিছু বাসাবাড়িতে তিতাস গ্যাসের অবৈধ সংযোগ দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয়রা বলেন, এলাকার খোকন নামের এক ব্যক্তি তিতাস গ্যাসের বৈধ সংযোগ দেয়ার কথা বলে প্রায় ৩০ টি বাড়ি থেকে ১ লক্ষ টাকা থেকে দেড় লক্ষ পর্যন্ত বৈধ গ্যাস সংযোগ বাবদ টাকা নেন তিনি ।
পরে কয়েক জনকে ডিমান্ড নোট ধরিয়ে দিয়ে পুরো এলাকার বাসাবাড়িতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেন খোকন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, প্রথমে তারা জানেন এটা বৈধ গ্যাস সংযোগ। পরে গ্যাস সংযোগের বিল পরিশোধের জন্য খোকনের কাছে বই চাইলে শুরু করেন নানান টালবাহানা, নানান অজুহাত দেখিয়ে দেই দিচ্ছি করে সময় নিতে থাকেন খোকন।

পরে তারা জানতে পারেন বৈধ গ্যাস সংযোগের কথা বলে টাকা নিয়ে সুকৌশলে ডিমান্ড নোটের মাধ্যমে অবৈধ সংযোগ দিয়েছে খোকন।

পরে খবর পেয়ে সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড কর্তৃপক্ষ অভিযান চালিয়ে অবৈধ ভাবে বাসা বাড়িতে দেয়া গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে।

এ সময় স্থানীয়রা বলেন, তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার দুই দিন পর ওই এলাকায় নতুন করে অবৈধ সংযোগ প্রদান করেন এই খোকন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অবৈধ সংযোগ কারীদের বিরুদ্ধে মামলা না করার কারণে বারবার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার পরও পুনরায় তারা আবার অবৈধ সংযোগ দিচ্ছেন। অবৈধ সংযোগ দিয়ে একদিকে যেমন প্রতারক চক্র লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে, অন্যদিকে রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। তাই অবৈধ সংযোগকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে না পারলে দিনদিন দেশের জাতীয় সম্পদ গ্যাস চুরি বাড়তেই থাকবে।

এ ব্যাপারে সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা প্রকৌশলী মোহাম্মদ সায়েম বলেন, অবৈধ বিতরণ লাইন এর বিরুদ্ধে আমরা প্রায় প্রতিদিনই অভিযান পরিচালনা করে আসছি।

অসৎ উপায়ে অবৈধ সংযোগকারী যেই হোক না কেন খবর পেলে অভিযান পরিচালনা করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।