কৃষি জমির রক্ষার জন্য ধামরাইয়ে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

ঢাকার ধামরাইয়ে কৃষি আবাদি জমি নষ্ট করে প্লট বানিয়ে হাউজিং ব্যবসা, বাঁধ দেওয়া ও জমি ভরাটের প্রতিবাদে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগীতা চেয়ে মানবন্ধন করেছে ভুক্তভোগী এলাকাসীরা। সোমবার বিকেল পাঁচ টায় ধামরাই থানা বাসষ্ট্যান্ডে আয়োজিত মানববন্ধনে উপজেলার কুল্লা ইউনিয়নের কাজিয়াল কুন্ডু, মাখুলিয়া, সাসনা ও সীতি এলাকার কয়েক’শ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধন শেষে ভুক্তভোগী এলাকাবাসীরা ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর বিষয়টি জানিয়ে স্মারকলিপি এবং লিখিত অভিযোগ প্রদান করেন।

আব্দুস সালাম নামে একজন অভিযোগ করেন, বড় কুশরিয়া এবং মামুরা এলাকায় কাইজেন গ্রæপ নামে একটি হাউজিং প্রতিষ্ঠান ভেকু দিয়ে আমাদের রাস্তার মাটি কেটে নিচ্ছে আমরা বাঁধা দিছি। আমাদের ড্রেন ও কবরস্থানের রাস্তা বন্ধ করে দিছে।
শহিদুল নামে অপর ব্যক্তি বলেন, কাইজেনের মালিক তৌহিদ সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আমাদেরকে মারতে আসে। আবাদী জমিতে কৃষি কাজ করতে দেয়না। আমরা ঘটনাটি জানিয়ে জিডি এবং লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি। আমাদের জমির চারপাশে বাঁধ দিয়ে জমি আটকে দিয়েছে কোন পানি ঢুকতে দেয়না ক্ষেতেও যেতে দেয়না।

বৃদ্ধ বান্দু মাধব কাঁদতে কাঁদতে বলেন, সন্ত্রাসী দিয়ে আমাকে মেরে জুর জুলুম করে মন্দিরসহ জমি নিয়ে গেছে কাইজেনের তৌহিদ। আমি এখন সব হারিয়ে পথের ভিখারী তাই প্রধানমন্ত্রীর কাছে এর সুষ্ঠ বিচার দাবি করছি।

অভিযুক্ত কাইজেন গ্রæপের পরিচালক মোঃ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, আনোয়ার, শওকত, আফসান ও জশিম নাকে কয়েকজন ব্যক্তি আমার প্রতিষ্ঠানের কাছে বিভিন্ন অনৈতিক সুবিধা দাবি করে। কিন্তু আমি তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় উদ্দেশ্যমূলকভাবে এলাকাবাসীদের ফুসলিয়ে আমার বিরুদ্ধে দাড় করিয়েছে। আমি কারও জমি জোরকরে দখল করিনি।

ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দ্বীপক চন্দ্র সাহা বলেন, এলাকাবাসীদের উপর অত্যাচারের বিষয়ে আগেও কাইজেনের বিরুদ্ধে অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আজও ভুক্তভোগীরা একটি মানববন্ধন করে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।